Melbondhon
এখানে আপনার নাম এবং ইমেলএড্রেস দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করুন অথবা নাম এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে লগইন করুন
widgeo

http://melbondhon.yours.tv
CLOCK
Time in Kolkata:

গাড়ি নিয়ন্ত্রণ করবে কম্পিউটার

View previous topic View next topic Go down

গাড়ি নিয়ন্ত্রণ করবে কম্পিউটার

Post by Arunima Roy on 2012-10-21, 10:12

গাড়ি নিয়ন্ত্রণ করবে কম্পিউটার
যে
প্রযুক্তি ব্যবহার করে আকাশে বিমান চালানো হয় সেই একই প্রযুক্তি ব্যবহার
করে চালানো হবে মোটরগাড়ি। গাড়ি চালানোর নির্দেশনা দেবেন চালক আর সেই সংকেত
কম্পিউটার পৌঁছে দেবে গাড়ির চাকায়। সংকেত বুঝে কম্পিউটার গাড়ির চাকার
চলাচল নিয়ন্ত্রণ করবে।
আর ঠিক এমনই একটি গাড়ির নকশা তৈরি করেছে জাপানের
বিখ্যাত মোটরগাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান নিশান। এখন চলছে পরীক্ষা-নিরীক্ষা।
সফল হলে নিশানই প্রথম বাণিজ্যিক ভিত্তিতে এই গাড়ির উৎপাদন শুরু করবে।
বাণিজ্যিক উৎপাদন সফল হলে নিশান চালকবিহীন গাড়ি নির্মাণের পথেও একধাপ এগিয়ে
যাবে। আগামী এক বছরের মধ্যে নিশান গাড়িটি রাস্তায় নামাতে পারে।
জানা
গেছে, গাড়ির চাকা ডানে বামে ঘোরানোর জন্য মেকানিক্যাল লিঙ্কের (ধাতব দণ্ড)
বদলে স্টিয়ারিং-বাই-ওয়্যার প্রযুক্তি ব্যবহার করা হবে। এই প্রযুক্তিতে
গাড়ির স্টিয়ারিং হুইল থেকে একটি বৈদ্যুতিক সংকেত পাঠানো হবে কম্পিউটার
ইউনিটের কাছে। কম্পিউটার ইউনিট সেই সংকেত মেনে চাকার চলাচল নিয়ন্ত্রণ করবে।
সনাতন পদ্ধতি ব্যবহার না করায় গাড়ি চালক কী করতে চান তা আরো দ্রুত চাকায়
পৌঁছে যাবে। চালক আরো স্বাচ্ছন্দ্যে গাড়ি চালাতে পারবেন। এতে গাড়ি
দুর্ঘটনা অনেকাংশে কমে যাবে।
গাড়ির রিয়ারভিউ মিররের ওপর থাকা ক্যামেরা
সামনের রাস্তা, লেন, পেছনের গাড়িটি দিক পরিবর্তন করছে কিনা তা রেকর্ড করে
এবং এসব তথ্য বৈদ্যুতিক সংকেত হিসেবে নিয়ন্ত্রক ইউনিটের (কম্পিউটার) কাছে
পাঠায়। তথ্য যদি না মেলে তাহলে মুহূর্তে তা ঠিক করে চাকার কাছে নতুন
নির্দেশনা পাঠায়। ফলে দীর্ঘসময় ধরে চালক গাড়ি চালালেও তার কষ্ট অনেক কম হয়।
দূরপাল্লার যাত্রা চালকের কাছে কষ্টদায়ক হওয়ার চেয়ে আনন্দদায়ক হয়ে ওঠে।
সাধারণত
এবড়োথেবড়ো রাস্তায় গাড়ি চালানোর সময় চালককে শক্ত হাতে হুইল (স্টিয়ারিং)
ধরে রাখতে হয়। এই গাড়িতে এসব কিছুই থাকবে না। নতুন প্রযুক্তির গাড়িগুলোতে
ব্যাকআপ হিসেবে ক্ল্যাচ সিস্টেম রাখার ব্যবস্থা থাকছে। ফলে কখনো কম্পিউটার
সিস্টেমে সমস্যা দেখা দিলে এটি স্টিয়ারিং ও ক্ল্যাচের মধ্যে সমন্বয় তৈরিতে
সাহায্য করবে।
নিশানের প্রকৌশলী মাসাহারু সাতুওর ভাষ্য, ‘এটিতে সফল হলে
যে কোনো স্থানে স্টিয়ারিং হুইল স্থাপন করা সম্ভব হবে। গাড়ির পেছনের সিটে
বসে বা কম্পিউটার গেমস খেলার জয়স্টিক দিয়েও গাড়ি চালানো সম্ভব হবে।’ যদি
গাড়িতে ব্যাকআপ হিসেবে ক্ল্যাচ রাখা হয় তাহলে গাড়ির ওজন বাড়বে, বাড়বে
জ্বালানি তেলের খরচ। বর্তমানে ভক্সওয়াগনের একটি বিশেষ মডেলের গাড়িতে
‘ড্রাইভ-বাই-ওয়্যার’ প্রযুক্তি ব্যবহার করে বার্লিনের রাস্তায়
পরীক্ষামূলকভাবে চালিয়ে দেখা হয়েছে। সফল হওয়ায় স্টিয়ারিং বা ওয়্যারের দিকে
ঝুঁকছে নিশান।
avatar
Arunima Roy
আমি আন্তরিক
আমি আন্তরিক

লিঙ্গ : Female
পোষ্ট : 21
রেপুটেশন : 0
শুভ জন্মদিন : 09/01/1993
নিবন্ধন তারিখ : 04/12/2011
বয়স : 24
অবস্থান : Dharmanagar
পেশা : CPMS

Back to top Go down

View previous topic View next topic Back to top


 
Permissions in this forum:
You cannot reply to topics in this forum